This is test blog

Posted on: October 1st, 2020 at 16 pm , By ADMIN

নিউজএক্স কলকাতা,ওয়েবডেস্ক: পথে নেমে সেই পুরোনো ছন্দে হুঙ্কার মুখ্যমন্ত্রীর।হাথরাস গণধর্ষণ নিয়ে যোগীরাজ্যকে করলেন তীব্রনিন্দা।এদিন কলকাতায় তিনি মিছিল করলেও মূলত বিধানসভার আগে এ রাজ্যে বিজেপি বিরোধিতার চড়া সুর বেঁধে দিলেন তিনি। গোটা দেশ থেকে বিেজপিকে উপড়ে ফেলার ডাক দিলেন তিনি। বললেন, ‘আর নেই দরকার, বিজেপির সরকার।’ দেশে একনায়কতন্ত্র চলছে, গণতন্ত্রের ছিঁটেফোটা নেই বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

এদিন মুখ্যমন্ত্রী বলেন,  ‘তৃণমূলের মহিলারাও গতকাল প্রতিবাদে ছিলেন হাথরসের ঘটনার জন্যে। অন্যদিকে করোনা মহামারী চলছে। আমার দলের নেতারাও মারা গিয়েছেন। কত মানুষ মারা যাচ্ছেন। কমিউনিটি স্প্রেড হয়ে গেছে এখন করোনার। অনেক রাজ্যে কেউ রাস্তাতেই নামে না। আমরা তো সবসময় রাস্তায় রয়েছি। আমরা তিনজন থাকি বাড়িতে। যে ছেলেটি চা দেয়, সে’ও আক্রান্ত হয়ে গেছে। ওরা বাইরে বেরোয় না, তাও হয়ে গেছে। আমরা মিছিল, মিটিং করছি না সেভাবে। কিন্তু বিজেপি মিটিং, মিছিল করে যাচ্ছে। দাঙ্গা লাগাচ্ছে, করোনা ছড়িয়ে যাচ্ছে।’

পাশাপাশি তিনি বলেন গোটা দেশ অন্ধকারে ডুবে গেছে তাই টর্চ হাতে নিয়ে গোটা দেশকে অন্ধকার মুক্ত করার কথা বলেন।এছাড়া দুর্গাপুজো নিয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা নাকি পুজো করতে দিই না, যোগীজি কেন দুর্গাপুজো করতে দিচ্ছেন না? মমতা দি মন্দির, মসজিদ, গীর্জা নিয়ে রাজনীতি করে না। সবাইকে নিয়ে চলি আমরা। ওয়ান নেশন, ওয়ান পলিটিক্যাল পার্টির দিকে এগোচ্ছে। রাষ্ট্রপতি শাসনের দিকে এগোচ্ছে দেশে। ভারতবর্ষে কোনও গণতন্ত্র নেই। কেউ কথা বলতে পারবে না। এটা কি দেশ চলছে?’

এদিন হাথরস কাণ্ডের প্রতিবাদে কলকাতায় মিছিল করে বাম ও কংগ্রেসও। তবে, মিছিল করে দুই দলের নেতা-কর্মীরা ধর্মতলা পর্যন্ত আসার পরই তাঁদের আটকে দেয় পুলিশ। কারণ অপরদিকে, মেয়ো রোডে মিছিল করে এসে বক্তব্য রাখেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙে দেন বাম-কংগ্রেস কর্মীরা।

https://www.facebook.com/MamataBanerjeeOfficial/videos/693615384574026/

Other Posts